top
top

এসএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশ, পাসের হার ৮২.৮৭ শতাংশ

এসএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশ, পাসের হার ৮২.৮৭ শতাংশ
Spread the love

হাওরাঞ্চল ডেস্ক:

এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে। এবারে গড় পাসের হার ৮২.৮৭ শতাংশ।

গত বছর গড় পাসের হার ছিল ৮২ দশমিক ২০ শতাংশ। এবার তা বেড়ে ৮২ দশমিক ৮৭ শতাংশ হয়েছে।

রোববার বেলা ১১টার দিকে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট থেকে ফেসবুক লাইভে ফলাফলের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন।

এর আগে পরপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে ফল প্রকাশ করেন।

এবার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ফল জানানো হবে না। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতে এ ব্যবস্থা নিয়েছে সরকার।তবে পরীক্ষার্থীরা নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট, সংশ্লিষ্ট বোর্ডের ওয়েবসাইট, ঢাকা বোর্ডের কেন্দ্রীয় ওয়েবসাইট এবং এসএমএসে ফল জানতে পারবে। এসএমএসে দু’ভাবে ফল জানানোর পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

একটি হচ্ছে, ফল প্রকাশের পর নির্ধারিত পদ্ধতিতে এসএমএস করলে ফিরতি এসএমএসে ফল চলে যাবে। এই পদ্ধতিতে অনেক সময় শিক্ষার্থীরা ঝক্কিতে পড়ে বলে অভিযোগ আছে।

এ কারণে এবার ফল প্রকাশের পরই স্বয়ংক্রিয়ভাবে এসএমএসে শিক্ষার্থীর বাসায় মোবাইল ফোনে তা (পরীক্ষার ফল) পৌঁছানোর পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এ লক্ষ্যে ছাত্রছাত্রীদের রোলনম্বর প্রাক-নিবন্ধন করতে বলা হয়েছে। আজ দুপুর ২টা পর্যন্ত এই কার্যক্রম চলবে।

শিক্ষা বোর্ডের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ১৮ মে এই প্রাক-নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয়। কিন্তু এতে তেমন একটা সাড়া মেলেনি। শুক্রবার বেলা ১টা ৫৮ মিনিট পর্যন্ত ১২ দিনে মাত্র ৫৫ শতাংশ প্রাক-নিবন্ধন হয়েছে। সারা দেশে মোট পরীক্ষার্থী ২০ লাখ ৪৭ হাজার ৭৭৯ জন। কিন্তু ১১ লাখ ৩৩ হাজার ৩৩১টি মোবাইল নম্বর প্রাক-নিবন্ধন হয়েছে।

বোর্ডের কর্মকর্তারা বলছেন, একই রোলের বিপরীতে একাধিক মোবাইল ফোনের নিবন্ধন আছে। সেই হিসাবে মোট পরীক্ষার্থীর অর্ধেকও নিবন্ধন করেনি।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের প্রধান সিস্টেম এনালিস্ট প্রকৌশলী মনজুরুল কবীর যুগান্তরকে বলেন, প্রাক-নিবন্ধন আশানুরূপ নয়। তবে যারা নিবন্ধন করতে আগ্রহী তাদের সুযোগ দিতে সময় আরও ১৪ ঘণ্টা বাড়ানো হয়েছে। আজ দুপুর ২টা পর্যন্ত নিবন্ধন করা যাবে।

তিনি বলেন, যারা প্রাক-নিবন্ধন করবে ফলাফল প্রকাশের পর তাদের দেয়া মোবাইল নম্বরে সার্ভার থেকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে জিপিএ গ্রেডসহ ফল পৌঁছে যাবে। তবে প্রাক-নিবন্ধন না করলেও কোনো উদ্বেগ নেই। এবারও আগের মতো অনলাইনে বা ওয়েবসাইট ও টেলিটকে এসএমএস করে ফল জানার ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে। ঢাকা বোর্ডের শিক্ষা বোর্ডের কেন্দ্রীয় ওয়েবসাইটে এবং পরীক্ষার্থীর স্ব স্ব শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইট থেকেও ফল পাওয়া যাবে।

জানা গেছে, যে কোনো মোবাইল অপারেটরের নম্বর থেকেই প্রাক-নিবন্ধন করা যাচ্ছে। এজন্য টেলিটকের সিম বাধ্যতামূলক নয়। নিবন্ধন করতে শিক্ষার্থীকে তার SSC পরীক্ষার Board-এর নামের প্রথম তিন অক্ষর (যেমন ঢাকা হলে DHA), এরপর পরীক্ষার Roll ও পরীক্ষার Year লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে। প্রতি এসএমএসের জন্য দুই টাকা চার্জ নেয়া হবে।

জানা গেছে, শুক্রবার ১টা ৫৮ মিনিট পর্যন্ত যে ১১ লাখ ৩৩ হাজার ৩৩১ জন নিবন্ধন করেছে তাদের মধ্যে গ্রামীণফোন নম্বর থেকে ৫ লাখ ৭৫ হাজার ৩৪৭ জন, রবি নম্বর থেকে ৩ লাখ ৬৩ হাজার ৬৭৭ জন, টেলিটক নম্বর থেকে ৮৯ হাজার ৬৬৮ জন এবং বাংলালিংক নম্বর থেকে ১ লাখ ৪ হাজার ৬১৯ জন ফল পেতে প্রাক-নিবন্ধন করেছে।

উল্লেখ্য, গত ফেব্রুয়ারিতে এসএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষা শেষে ৬০ দিনের মধ্যে ফল প্রকাশের রেওয়াজ আছে। সেই হিসাবে চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে ফল প্রকাশের কথা ছিল। কিন্তু করোনা সংক্রমণের কারণে ফল তৈরির কাজ বন্ধ ছিল।