top
top

লাউ গাছের সাথে এ কেমন শত্রুতা!

লাউ গাছের সাথে এ কেমন শত্রুতা!
Spread the love

স্টাফ রিপোর্টার: সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার জাহাঙ্গীরনগর ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামে রাতের আধারে পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রায় ১৫ শতক জমির সব লাউ গাছ কেটে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা। গত মঙ্গলবার রাতে জাহাঙ্গীনগর ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামের রফিকুল ইসলামের লাউ বাগানে এ ঘটনাটি ঘটে। লাউ বাগানের সাথে এমন শত্রুতায় হতবাক গ্রামবাসী। বর্তমান যুগে এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনা মেনে নিতে পারছেন না গ্রামের সাধারন মানুষ। সহজ-সরল গ্রামের মানুষের তাই একটাই দাবী এ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যাবস্থা করা হোক। এ ব্যপারে কথা হলে লাউ বাগানের মালিক মোঃ রফিকুল ইসলাম জানান, বুধবার সকালে লাউ কাটতে গিয়ে দেখি আমার ১৫ শতক জমির সব লাউ গাছ কেটে ফেলেছে দৃর্বৃত্তরা। লাউ বাগানের এমন চিত্র দেখে আমি স্তব্দ হয়ে যাই। তিনি আরো জানান, প্রায় তিন মাস আগে আমি লাউয়ের চারা রোপন করেছিলাম। চারা থেকে ধীরে ধীরে বড় হয়ে উঠে লাউ গাছগুলো। দিন রাত অক্লান্ত পরিশ্রম করে চারাগুলো বড় করতে শ্রম দেই আমি। এতে আমার অনেক অর্থও ব্যায় হয়। কিন্তু লাউগাছগুলো যখন ফলন দিতে শুরু করলো তখনই দুর্বৃত্তরা আমার সব লাউগাছ কেটে ফেলল। লাউ গাছ রোপন করে আমি যে আয়ের স্বপ্ন দেখেছিলাম তা স্বপ্নই রয়ে গেল। তিনি আরো জানান, দুর্বৃত্তরা লাউগাছগুলো কেটে আমার প্রায় দেড় লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন করেছে। যে বা যারাই এ ঘটনাটি ঘটিয়েছে আমি তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানাই। আমি ন্যায় বিচারের আশায় সুনামগঞ্জ সদর থানায় অভিযোগ দাখিল করেছি। আমি চাই সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে অপরাধীদের আইনের আওতায় আনা হোক।
এ ব্যাপারে লাউ বাগানের মালিকের বাগিনা প্রভাষক মো. মাইনুদ্দীন জানান, আমাদের গ্রাম অত্যন্ত শান্তিপ্রিয় গ্রাম। এ গ্রামে এমন ঘটনা আগে কোনদিন ঘটেনি। বর্তমানে পারিবারিক কলহের জেরে এ ধরনের ঘটনা ঘটছে। যারা এ ঘটনার সাথে জড়িত আমরা চাই প্রশাসন যেন তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যাবস্থা গ্রহণ করে। স্থানীয় মেম্বার মো. বিল্লাল হোসেন জানান, লাউ গাছ কাটার বিষয়টি শুনেছি যা খুবই দুঃখজনক। ঘটনাটি শুনার পর আমি ও জাহাঙ্গীরনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুকশেদ আলী সরজমিনে পরিদর্শন করে এসেছি। ঘটনার সাথে জড়িতদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানাই।