top
top
Breaking News

জামালগঞ্জে বোরো ধানের খলা নিয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় নারীসহ ১২জন আহত

জামালগঞ্জে বোরো ধানের খলা নিয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় নারীসহ ১২জন আহত
Spread the love

স্টাফ রিপোর্টার:

সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জের পল্লীতে বোরো ধানের খলা তৈরীকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় নারীসহ ১২জন আহত হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটে উপজেলার লক্ষীপুর গ্রামের হাইস্কুলের সামনের রাস্তায় গত মঙ্গলবার দুপুর ১টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। আহতদের স্থানীয় জামালগঞ্জ ও জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মাঝে উপজেলার সদর ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামের মৃত আজমান আলীর পুত্র আনোয়ারুল হক, মৃত রুপাত উল্লাহ পুত্র ফারুক মিয়া, ফারুক মিয়া পুত্র ছোট মিয়া,এমরান মিয়ার পুত্র আলী হাসান, হাবিবুর রহমানের পুত্র বাবুল মিয়া, মৃত বকুল মিয়ার পুত্র মিটু মিয়া, নবিকুল ইসলামের পুত্র সাজু মিয়া প্রমুখ। লক্ষীপুর গ্রামের আয়না মিয়ার সাথে একই গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য হাবিবুর রহমানের লোকজনের মধ্যে বোরো ধানের খলা তৈরী নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। খলাটি জামালগঞ্জ উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান ঝুনু মিয়ার জায়গায় খলাটি তৈরী করছিল হাবিব মিয়ার লোকজন। এ সংঘর্ষটি থেমে থেকে দুপুর ১টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত চলে এবং আয়নাল মিয়ার লোকজন দেশীয় অস্ত্র সশ্র নিয়ে হাবিবের বাড়ীসহ তিনটি বাড়ীতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুট করে। আহতদের প্রথমে জামালগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে ৭জনকে জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে এবং ৫জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে হাবিবুর রহমান জানান, সম্পূর্ন অন্যায়ভাবে আয়না মিয়ার নেতৃত্বে ২০-৩০ জনের অস্ত্রধারী লোকজন হামলা চালিয়ে আমার আত্মীয় স্বজন ১২জনকে গুরুতর জখম করেছে এবং ৪টি বাড়ীঘর ভেঙ্গে যাবতীয় মালামাল লুট করিয়া নিয়া গেছে। আমি ন্যায় বিচারের জন্য জামালগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি।

এ ব্যাপারে জামালগঞ্জ থানার ওসি মো: সাইফুল ইসলাম জানান, লক্ষীপুরে সংঘর্ষের ঘটনায় এক পক্ষ গতকাল একটি দরখাস্ত দাখিল করেছেন এবং অপর পক্ষও একটি দরখাস্ত দাখিল করবেন মর্মে আমাকে জানিয়েছেন। দুটি দরখাস্ত তদন্ত পূর্বক যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।