top
top
Breaking News

সুনামগঞ্জের ছাতকে মাদকের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিকের পরিবারের উপর হামলায় শিশুনারীসহ আহত ৯

সুনামগঞ্জের ছাতকে মাদকের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিকের পরিবারের উপর হামলায় শিশুনারীসহ আহত ৯
Spread the love

স্টাফ রিপোর্টারঃ সুনামগঞ্জের ছাতকে মাদকের বিরুদ্ধে সংবাদ প্বা্রকাশের জের ধরে সাংবাদিক পীর জুবায়েরসহ পরিবারের উপর হামলা চালিয়ে নারী শিশুসহ ৯ জনকে আহত করেছে।  বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ছাতক উপজেলার লক্ষণসোম গ্রামে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এতে আহত হয়েছে সাংবাদিকসহ তার পরিবারের ৯ সদস্য।

সুত্র জানায়, গত কিছুদিন পূর্বে দৈনিক হাওরাঞ্চলের কথা পত্রিকায়  ছাতক উপজেলার লক্ষণসোম গ্রামের ইয়াবা ব্যবসায়ী ওমর সানীর মাদক ব্যবসার সংবাদ প্রকাশ  স্থানীয় সাংবাদিক পীর জুবায়ের । মাদকের বিরুদ্ধে সংবাদ পরিবেশন করায় ক্ষীপ্ত হয়ে ওঠে মাদক ব্যবসায়ী ওমর সানী ও তার সহযোগিরা । বেশ কয়েকবার সাংবাদিক পীর জুবায়েরকে হত্যার হুমকিও প্রদান করে আসছে ওই মাদক ব্যবসায়ী। হুমকির জেরে পীর জুবায়ের স্থানীয় জাউয়া বাজার পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে একটি জিডি-৫১২ করেন। বৃহস্পতিবার ইফতারের পরপর হটাৎ ওই সাংবাদিকে বাড়িতে অতর্কিত হামলা চালায় মাদক ব্যবসায়ী ওমর সানী ও তার দল। হামলায় আহত হয়েছেন সাংবাদিক পরিবারের ৯ সদস্য। আহতরা হলেন পীর জুবায়ের(২১), তার পিতা স্টোকের রোগী হাজী ফখর উদ্দিন (৮৫), মা নুরুন্নাহার বেগম(৫৫), বোন সুমী বেগম(২৮), মারজানা বেগম(২৩), ভাগ্নে তামিম আহমদ(১৪), অমি আহমদ(১১), প্রীতি বেগম(৭) ও অতিথি জাহাঙ্গির আলী(৪৫)। খবর পেয়ে জাউয়া বাজার পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের এএসআই রেজাউল করিম ও আব্দুল মান্নানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে আহতদেরকে স্থানীয় কৈতক হাসপাতালে নিয়ে যায়।

পীর জুবায়ের বলেন, মাদক ও যৌতুকের বিরুদ্ধে কথা বলায় আজ আমার পরিবারের ওপর আকস্মিক হামলা চালায় আরশ আলী (৫৫), তার পুত্র ফযছল (৩৫), জাহাঙ্গির (৩২), এমরান(৩০), মনির(২৮), মাদক ব্যবসায়ী ওমর সানী(২৬) ও মধু(২২)। আমার বসত ঘরে ঢুকে লাঠি সোটাসহ হামলা চালিয়ে আমার বৃদ্ধ মা, বোন, ভাগনাসহ ৯জনকে আহত করে। সংবাদের কাজে ব্যবহৃত ল্যাপটপ ও ক্যামেরা ভেঙ্গে ঘরে থাকা অনেক দামি জিনিসপত্র লুট করে নিয়ে যায় তারা।

জাউয়া বাজার পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের এএসআই রেজাউল করিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় কৈতক হাসপাতালে নিয়ে এসেছি। তবে কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি। এ ঘটনায় অপরাধীদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।